মন ভালো করার কবিতা মন করুন ভালো নিমিষে

আজকে আপনাদের জন্য মন ভালো করার কবিতা নিয়ে হাজির। পড়ে দেখুন ভালো লাগবে

একটি সুন্দর কবিতা মনের আঙিনায়
রৌদ্র করোজ্জ্বল হেমন্ত আনে
আস্ত একটা বসন্তকে তার সমুদয়
আনন্দ উল্লাসসহ দাঁড় করিয়ে দেয় চোখের সামনে
আমি কবিতা ছুঁয়ে দেখি
কবিতার গা গতরে হাত বুলাই
যেমন করে ঘুম পাড়ানোর সময়
পরম আদরে মা আমার মাথায় হাত বুলোতেন
বিলি কাটতেন
ঠিক তেমনি, কবিতার শব্দে শব্দে আলগোছে
আমার আঙ্গুল নাড়াচাড়ার শব্দ উপভোগ করি
কবিতা কি এতে আনন্দ পায়?
কবিতার অক্ষরগুলো কি আনন্দে শব্দ করে খলখল হেসে ওঠে?

কবিতা আসলে কী?
মনের অনুভূতি?
জীবনের স্পন্দন?
হৃদয়ের অব্যক্ত কথামালার মৌন মিছিল?
গাও গেরামের শুনশান নিরবতাক্লিষ্ট পথঘাট?
জেলেদের মাছের নাও?
কামারের হাঁফরের ঘোঁত ঘোঁত শব্দ?

কবিতার নিবাস কোথায়?
রাতের নির্ঘুম চাদোয়ার আবরনে কি কবিতা থাকে?
না কি ঝর্নার উঁচু নিচু সর্পিল আঁকাবাকা নির্ঝর পেলব পথচলায় কবিতার বসবাস?
পাখিদের শেষ বিকেলের ডানা ঝাপটানোর শব্দে কবিতার কোনো ছন্দ থাকে কি?
কিশোরীর হাস্যোজ্জ্বল ঠোটের কোনে
ঝোপের আড়ালে ফুটে থাকা বুনো ফুলে
লতা গুল্ম শিমের ছড়ায় কবিতার শব্দরা লুকিয়ে থাকে কি?

আমি রাতজাগা পাখিদের মাঝে কবিতার বিমুগ্ধসব ছন্দ খুঁজে পাই
রাতজাগা পাখিরাও কি কবিতার শব্দ খুঁজে বেড়ায় গভীর নিশিথের ভাঁজে ভাঁজে?
আমার কাছে-
একটি নির্ঘুম রাত মানে, বিমুগ্ধ শব্দাবলী, অনেক কবিতা
আমি কবিতার জন্য নিরন্তর শব্দ খুঁজি-
সাগরের তলদেশ পাহাড় নদী খুড়ে আনা অলৌকিকসব শব্দধ্বনি
দৃষ্টিসীমার বাইরে উর্ধ্বজগতের অবয়ব থেকে
খসে পড়া বিচিত্রসব শব্দরা আমার হাতে এসে থিতু হয়
বুকে মুখে এসে ক্রন্দন করতে থাকে
প্রকাশের উদগ্র বাসনায় তারা গুমরে কাঁদতে থাকে
পৃথিবী দেখার তাদের বড় শখ
জোছনাভেজা রাত্রির খোলসে তাদের বিচরনের ইচ্ছে
সাঁকো পেরিয়ে এ গাঁও ও গাঁও যাওয়ার বাসনা তাদের
কলাইয়ের ক্ষেতে, ধান সরিষার সোনালী মাঠে তাদের ছোটাছুটির নিরবধি আকাঙ্খা

তাদের জন্য আমি কবিতা লিখি-
আমি শব্দ দিয়ে ছন্দ আঁকি
আমি শব্দের বুননে কবিতার জাল বুনি

আরো পড়ুন প্রেমের কবিতা তবে আমার মনে

আরো পড়ুন কষ্টের কবিতা

আমাদের মন ভালো করার কবিতা টা কেমন লেগেছে কমেন্ট করে জানান এবং শেয়ার দিন।

Leave a Comment